Posted on 3 Comments

যতো মোবাইলে বা কম্পিউটারে আপনার ফেসবুক আইডি লগিন আছে তা লগআউট করে দিন মাত্র এক ক্লিকের মাধ্যমে!!!

হ্যালো ভিউয়ার্স আসসালামু আলাইকুম। 

আশা করি আপনারা সবাই আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে ভাল আছেন। আমিও আপনাদের দোয়ায় ভাল আছি। তো আজকে আমি আবারো আপনাদের কাছে ফিরে এলাম আরো এক সুন্দর এবং চমৎকার একটি টিউটোরিয়াল নিয়ে। যার মাধ্যমে আপনি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট যত মোবাইল বা কম্পিউটারে লগইন আছে কিন্তু লগআউট করতে ভুলে গেছেন সেই সকল মোবাইল এবং কম্পিউটার থেকে মাত্র এক ক্লিকের মাধ্যমে  আপনার আইডিকে লগ আউট করে নিতে পারবেন।

তো চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

সর্বপ্রথম আপনাকে যে কাজটি করতে হবে সেটা হচ্ছে আপনার যে একাউন্টি অধিক কম্পিউটার এবং মোবাইলে লগইন আছে সেই একাউন্টে আপনার যেকোন একটা ফোনে লগইন করে নিতে হবে।

এখন আমি নিচের ধারাবাহিকভাবে স্ক্রিনশট দিয়ে দিচ্ছি সেটা ফলো করে আপনার কাঙ্ক্ষিত কাজটি করে নিতে পারবেন।

[img id=3292]
[img id=3291]
[img id=3290]
[img id=3289]
[img id=3288]

তো এরপর একসময় দেখবেন নামের একটা অপশন আছে সেখানে ক্লিক করলে কনফার্ম হওয়ার জন্য আর একবার ক্লিক করতে বলবে তখন কনফার্ম করে দিন ব্যাস আপনার কাজ এখন শেষ আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্ট যত কম্পিউটার বা মোবাইলে লগইন করা ছিল কিন্তু লগআউট করতে ভুলে গিয়েছিলেন সে সকল কিছু লগ আউট হয়ে গেছে।

আশা করছি টিউটোরিয়ালটি ভালো লেগেছে । আজকের টিউটোরিয়ালটি এই পর্যন্তই। ইনশাল্লাহ আবার দেখা হচ্ছে পরবর্তী টিউটোরিয়ালে ততক্ষণ পর্যন্ত ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন খোদা হাফেজ।


Posted on Leave a comment

যেভাবে ইউটিউবের চার ধরনের ডলার চিহ্ন কাজ করে! (বিস্তারিত পোস্ট)

হ্যালো বন্ধুরা!!!

আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন। 

আজকে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব যেভাবে ইউটিউবের চার ধরনের ডলার চিহ্ন কাজ করে!

তো চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক!

ইউটিউব এ চ্যানেল মনিটাইজেশন পাওয়ার পর ভিডিও এডিটিং এ গেলে ভিডিওর পাশে আমরা চার রকম ডলার চিহ্ন দেখতে পাই ।

সেই চিহ্ন গুলো হচ্ছে যথাক্রমে সবুজ, হলুদ সাদা এবং কাঁটাযুক্ত ডলারের চিহ্ন। আজকেে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব এই চারটি ডলার সাইন নিয়ে। এগুলো দ্বারা ইউটিউব আসলে কি বুঝায়, কেন দেয় সে বিষয় আপনাদের মাঝে তুলে ধরার চেষ্টা করব।

সবুজ চিহ্ন:  এর মানে বোঝায় আপনার ভিডিওটি ইউটিউব এডস এর জন্য সম্পূর্ণভাবে প্রস্তুত এবং লিগ্যাল।

হলুদ ডলার চিহ্ন: এর মানে বোঝায় আপনার ইউটিউব এর ভিডিও Advertiser Friendly নয়। Advertiser Friendly হচ্ছে এমন একটি মাধ্যম যেটাতে আপনার ভিডিও যদি ইউটিউব এর কোন পলিসি এর শর্তপূরণ করতে না পারে তখন এই ডলার চিহ্ন দেখা যায়।

সাদা ডলার: এর মানে বোঝায় আপনার ভিডিও এডসের জন্য তৈরি। শুধু সেটা এনাবেল করা বাকি রয়েছে।

কাঁটাযুক্ত ডলারের চিহ্ন: আপনার ভিডিও কপিরাইট করা হলে বা অন্য কোনো আইন ভঙ্গ করলে মনিটাইজেশন পাওয়ার পরও আপনার ভিডিওতে এড শো হবে না।



আশা করি পোস্টটি ভালো লেগেছে।

চাইলে আমার ফেসবুক পেজ থেকে ঘুরে আসতে পারেন! সকল রকম কুশিকাটা প্রডাক্ট এভাইলেবেল এই পেজে। পেজ লিংক:  https://www.facebook.com/hafsamarket10/ 

ধন্যবাদ সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য।

Posted on 1 Comment

সকল সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাপস ব্যবহার করুন শুধুমাত্র একটি অ্যাপস ব্যবহার করে – আর হ্যাং থেকে সুরক্ষিত এবং সুপারফাস্ট রাখুন নিজের ফোনকে!

হ্যালো ভিউয়ার্স আসসালামু আলাইকুম। 

আশা করি আপনারা সবাই আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে ভাল আছেন। আমিও আপনাদের দোয়ায় ভাল আছি। প্রায় বহুদিন যাবত আমি সকল রকম সোশ্যাল একটিভিটি থেকে দূরে ছিলাম কিছু সমস্যার কারণে। যার ফলে প্রায় অনেক দিনই ওয়েবসাইটে পোস্ট করা হয় নাই। তো আজকে আমি আবারো আপনাদের কাছে ফিরে এলাম আরো এক সুন্দর এবং চমৎকার একটি টিউটোরিয়াল নিয়ে। যার মাধ্যমে আপনি সকল রকম সোশ্যাল অ্যাপ্লিকেশন বা অ্যাপ যেমন ফেসবুক ইউটিউব টুইটার জিমেইল ইয়াহু সহ আরো প্রচুর অ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন শুধুমাত্র একটি অ্যাপ ইন্সটল করে। এর সুবিধা হচ্ছে একটি অ্যাপ ব্যবহার করায় আপনার ফোনের র্যাম কম ব্যবহৃত হচ্ছে যার ফলে আপনার ফোন যেমন সুপারফাস্ট থাকবে তেমনি হ্যাং করারও কোনো সম্ভাবনা থাকবে না।

তো চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

অ্যাপটির নাম হচ্ছে: All Social Media And Social Networks.

এই নাম লিখে যদি আপনি সরাসরি গুগল প্লে স্টোরে সার্চ দেন তাহলে অনেক অ্যাপস চলে আসতে পারে তাই আমি নিজে কাঙ্খিত অ্যাপসটি ডাউনলোড লিংক দিয়ে দিচ্ছি সেখান থেকে আপনি ক্লিক করে খুব সহজে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

ডাউনলোড করতে পাশে ক্লিক করুন: [url=https://play.google.com/store/apps/details?id=com.twins.socialmediabrowser]Click Here[/url]

তো এরপর বাকি কাজগুলো নিচে দেওয়া স্ক্রিনশট অনুযায়ী ফলো করতে থাকুন। ফলো করতে করতে এক পর্যায়ে দেখবেন আপনার কাছে কিছু লিস্ট চলে এসেছে যেখানে প্রচুর সোশ্যাল মিডিয়ার অ্যাপ রয়েছে সেই সকল অ্যাপস আপনি ব্যবহার করতে পারবেন শুধুমাত্র এই অ্যাপটি ব্যবহার করে। তাছাড়া এক্সট্রা সুবিধা হিসেবে এই অ্যাপের ডেভলপার অ্যাপটিতে পাসওয়ার্ড সেট করার ব্যবস্থা করে দিয়েছে ফলে আপনি ইচ্ছা করলেই ফোনটিতে চার অথবা 5 ডিজিট পাসওয়ার্ড দিয়ে রাখতে পারবেন।

[img id=2779]
2.
[img id=2778]
3.
[img id=2777]
4.
[img id=2776]

আশা করছি টিউটোরিয়ালটি ভালো লেগেছে । আজকের টিউটোরিয়ালটি এই পর্যন্তই। ইনশাল্লাহ আবার দেখা হচ্ছে পরবর্তী টিউটোরিয়ালে ততক্ষণ পর্যন্ত ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন খোদা হাফেজ।
Posted on Leave a comment

গ্রামারের সহজ-কঠিন সকল নিয়ম নিজের আয়ত্তে নিয়ে আসুন মাত্র একটি মাত্র অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে!

হ্যালো ভিউয়ার্স আসসালামু আলাইকুম। 

আশা করি আপনারা সবাই আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে ভাল আছেন। আমিও আপনাদের দোয়ায় ভাল আছি। কিছু সমস্যার কারণে প্রায় অনেক দিনই ওয়েবসাইটে পোস্ট করা হয় নাই। তো আজকে আমি আবারো আপনাদের কাছে ফিরে এলাম আরো এক সুন্দর এবং চমৎকার একটি অ্যাপস নিয়ে। যার মাধ্যমে আপনি গ্রামাটিক্যাল এর সকল খুটিনাটি বিষয় যেমন পাবেন তেমনি সেই নিয়ম গুলো শিখে চর্চা করে অল্পদিনের মধ্যেই ইংরেজিতে দক্ষ হয়ে উঠতে পারবেন। 
তো চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক।

ইংরেজি!!! আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষ ইংরেজি কে এক ধরনের আতঙ্কের নাম হিসেবে মনে করে। ইংরেজি নামটাই যেন আতঙ্ক। মূলত ইংরেজিতে এরকম ভয় ভীতির সৃষ্টি হয় গ্রামাটিক্যাল দুর্বলতা থাকলে  গ্রামাটিক্যাল কে ইংরেজি বলা হয়ে থাকে। আপনি ইংরেজি তখনই অনর্গল বলতে পারবেন এবং লিখতে পারবেন যখন আপনি গ্রামাটিক্যাল কে সুন্দর ভাবে নিজের আয়ত্তে আনতে পারবেন।

আজকে আমি আপনাদের মাঝে যে অ্যাপটি সম্পর্কে আলোচনা করব সেটিতে একেবারে বাচ্চাদের বেসিক থেকে শুরু করে প্রফেশনালদের এডভান্স পর্যন্ত সকল ধরনের গ্রামাটিক্যাল নিয়ম পাবেন শুধুমাত্র এই একটি অ্যাপ এর মধ্যে।

আর সবচাইতে মজার এবং আশ্চর্যজনক বিষয় হচ্ছে এই অ্যাপটিতে আপনারা উদাহরণসহ বুঝতে পারবেন ।ক্লিয়ার করে বলতে গেলে একটা নিয়ম শেষে আপনাদের আরো ভালভাবে বোঝার জন্য নিচে সুন্দর করে কিছু উদাহরণ দেওয়া থাকবে এই অ্যাপে।

আপনাদের জন্য আমি অ্যাপটির কিছু স্ক্রিনশট দিয়ে দিচ্ছি চাইলে এই স্ক্রিনশট গুলো দেখতে পারেন বা সরাসরি অ্যাপটির গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড করেও দেখতে পারেন।
[img id=1366]
[img id=1368]
[img id=1367]
[img id=1370]

অ্যাপটির নাম হচ্ছে: All English Grammer Rules

ডাউনলোড করতে পাশে ক্লিক করুন: [url=https://play.google.com/store/apps/details?id=com.rsnapp.english_grammar_learning_app_in_bangla]Click The Link[/url]

আশা করছি টিউটোরিয়ালটি ভালো লেগেছে এটি একটি শিক্ষনীয় টিউটোরিয়াল ছিল বা অ্যাপ রিভিউ বলতে পারেন যার মাধ্যমে যেকেউ ঘরে বসে টাকা খরচ করে দামি দামি বই না কিনে একটি মাত্র অ্যাপ ব্যবহার করে ইংরেজি গ্রামাটিক্যাল দক্ষ হয়ে উঠতে পারবেন আজকের টিউটোরিয়ালটি এই পর্যন্তই ইনশাল্লাহ আবার দেখা হচ্ছে পরবর্তী টিউটোরিয়ালে ততক্ষণ পর্যন্ত ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন খোদা হাফেজ।
Posted on 6 Comments

ইউটিউব ভিডিও লাইক/ডিজলাইক ও কমেন্ট বন্ধ করার উপায়!

হ্যালো বন্ধুরা!!!

আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন। যারা  TwiceBD.com এই ওয়েবসাইটের সাথে থাকে  তারা সব সময় ভালই থাকে। আমিও আল্লাহ তাআলার অশেষ রহমতে ভালো আছি। 

তো আজকে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব কিভাবে আপনি ইউটিউব চ্যানেলের ভিডিওতে কমেন্ট এবং লাইক-ডিজলাইক অপশন অফ করবেন। TwiceBD.com এর পক্ষ থেকে আপনাদের সাথে আছি আমি মোঃ মেহেদী হাসান।

তো চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক!

আসলে  এটা একটি রিকোয়েস্ট টিউটোরিয়াল। আমার অনেক বন্ধু আমাকে রিকোয়েস্ট করেছিল এরকম একটা উপায় দেখানোর জন্য যার মাধ্যমে তারা তাদের ইউটিউব চ্যানেলের লাইক বাটন এবং কমেন্ট বক্স অফ করতে পারে।

সুতরাং এই টিউটোরিয়ালটি শুধুমাত্র তাদের জন্য  যারা নিজেদের ইউটিউব এর লাইক বাটন এবং  কমেন্ট বক্স অফ করতে চাচ্ছেন কিন্তু পারছেন না  তবে যারা জানেন  তাদের কাছে এই টিউটোরিয়ালটি তুচ্ছ  মনে হতে পারে এটা স্বাভাবিক ব্যাপার কারন আপনার  এই বিষয়ে ধারণা আছে  কিন্তু যাদের ধারনা নাই তাদের এই বিষয়টি নতুন লাগবে তাই যারা জানেন তারা অযথা কমেন্ট না করে পোষ্টটি এড়িয়ে গেলেই ভালো হয়।

অনেক কথা হয়ে গেছে তো চলুন মেইন টপিকে চলে আসা যাক। ইউটিউব এর লাইক বাটন এবং কমেন্ট বক্স অফ করার জন্য আপনাকে আপনার ইউটিউব চ্যানেলে যেতে হবে যেটাতে আপনার ফোনে বা কম্পিউটারে লগইন করে আছে।

নোটঃ যদি আপনার কম্পিউটার হয় তাহলে বাড়তি কোন কিছু করার দরকার নেই কিন্তু যদি আপনি মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন তাহলে আপনাকে অবশ্যই গুগল ক্রোম ব্রাউজার ব্যবহার করতে হবে এবং সেটাকে ডেক্সটপ মুড অন করে নিতে হবে।

যদি লগ ইন করা থাকে তাহলে Your Channel নামের উপরের দিকে একটা অপশন পাবেন সেটাতে ক্লিক করুন।
[img id=741]

ক্লিক করার পর নতুন একটি পেজ ওপেন হবে সেখানে নীল কালারের রং দ্বারা দেখবেন লেখা আছে Customise Channel নামের আরেকটি অপশন সেটাতে ক্লিক করুন।
[img id=740]

তারপর আপনার সাবস্ক্রাইব এর যে বাটনটি আছে তার বামপাশে ফোনের সেটিংস এ যে লোগো থাকে ঠিক সেরকম একটি লোগোর চিহ্ন দেওয়া আছে সেটাতে ক্লিক করুন।
[img id=739]

এখন দেখবেন শুরুতে কিছু অপশন পাবেন ইউটিউবে লাইক অপশন এবং কমেন্ট বক্স অফ করার সেগুলো অফ করে দিলেই আপনার কাজ হয়ে যাবে ভালো বোঝার জন্য স্ক্রিনশটটি দেখুন ।
[img id=738]

এখন কেউ আপনার ভিডিওতে কমেন্ট করতে পারবে না এবং লাইক-ডিজলাইক অপশন দেখা যাবে না।



আশা করি পোস্টটি ভালো লেগেছে।

ধন্যবাদ সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য।

Posted on 5 Comments

গাছপালা বা যাই থাকুক না কেন যেকোনো ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করুন মাত্র ১ ক্লিকে!

হ্যালো ভিউয়ার্স! আসসালামু আলাইকুম। আশা করি আপনারা সবাই আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে ভাল আছেন। আমিও আপনাদের দোয়ায় ভালো আছি।
আজকের এই টিউটোরিয়ালে আমি আপনাদের দেখাবো কিভাবে আপনারা যেকোনো টাইপের ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ রিমুভ করবেন এক ক্লিকে।

আপনাদের পুরো টিউটোরিয়াল জুড়ে সাথে আছে আমি মেহেদী হাসান। চলুন শুরু করা যাক।

আমরা অনেকেই আছি যারা একটু সময় পেলেই কমবেশি ফটো এডিটিং করতে ভালোবাসি। তাছাড়া এই ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ বা ব্যাকগ্রাউন্ড ফটো এডিট করা বা কেটে ফেলা অনেক সময় আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে পড়ে। নিজের ছবিকে অন্য কোথাও বসানো হোক বা অন্য যেকোনো গুরুত্বপূর্ণ কাজে ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ ডিলিট করে নিজের ছবি রাখার প্রয়োজন পড়ে।

অনলাইনে এমন হাজার হাজার অ্যাপস আছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনি ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ বা ফটো ডিলিট করে দিয়ে নিজের ছবি রাখতে পারবেন। তবে তার জন্য হাতের আংগুল দিয়ে লাইন কেটে ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ থেকে আপনার কাঙ্খিত ইমেজ কে সরিয়ে ফেলতে হবে। এই প্রক্রিয়াটি অত্যন্ত সময়সাপেক্ষ এবং নিখুঁতভাবে করতে গেলে অনেক সময় এক ঘন্টা সময়ও লেগে যায়।

আবার হয়তো এক ক্লিকে ব্যাকগ্রাউন্ড ডিলিট করারও কিছু অ্যাপস গুগোল প্লেস্টরে আছে তবে সেই অ্যাপস গুলো তখনই কাজ করবে যখন আপনার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড যেকোনো এক কালারের হবে। যেমন সাদা, নীল বা অন্য যে কোন এক কালারের ব্যাকগ্রাউন্ড হলে ওই অ্যাপস দিয়ে এক ক্লিকে ব্যাকগ্রাউন্ড ডিলিট করতে পারবেন।

তবে আজকে আমি আপনাদের সাথে যে অ্যাপসটি শেয়ার করব এটার মাধ্যমে আপনার ইমেজের ব্যাকগ্রাউন্ড যাই থাকুক না কেন আপনি সেটা এক ক্লিকের মাধ্যমে রিমুভ করে দিতে পারবেন।
ধরুন উদাহরণ হিসেবে বলতে গেলে আপনার ছবির ব্যাকগ্রাউন্ড এ যদি কোনো রকম গাছপালা বা অন্য যেকোন অবজেক্ট বা বস্তু থাকে তাহলে আপনি সেগুলো এক ক্লিকের মাধ্যমে ডিলিট করতে পারবেন যা অন্যান্য অ্যাপস দ্বারা করা কখনোই সম্ভব নয়।
সো যারা এই ঝামেলার প্রক্রিয়াটিকে বাদ দিতে চান শুধুমাত্র তাদের জন্য আজকের আমার এই টিউটোরিয়ালটি। যেখানে আপনি একটি মাত্র ক্লিক করার মাধ্যমে নিজের ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ ডিলিট করে দিতে পারবেন

সর্বপ্রথম আপনাকে একটি অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে গুগল প্লে স্টোর থেকে। অ্যাপটির লিংক নিচে দেওয়া হলো। এখান থেকে আপনি সরাসরি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

App Link:[url=https://play.google.com/store/apps/details?id=com.versa]Makaron – Click Here To Download[/url]

নোট: যে কথা না বললেই নয় এই অ্যাপটি ব্যবহার করে আপনার ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ রিমুভ করার জন্য কিন্তু অবশ্যই আপনার ফোনে ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে। ইন্টারনেট কানেকশন ছাড়াই এই অ্যাপটি কাজ করবে না। তবে জেনে রাখা ভালো ইন্টারনেট লাগবে বলে আবার ভেবেন না ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ রিমুভ করতে 100 থেকে 200 এমবি চলে যাবে। এটা যদি কেউ ভেবে থাকেন তাহলে সম্পূর্ণ ভুল। কেননা ডাটা কানেকশন অন করে ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ রিমুভ করতে নিলে সর্বোচ্চ আপনার সিম থেকে ৫ থেকে ৬এমবির মতো খরচ হবে।

[img id=573]
১। সর্বপ্রথম অ্যাপটি ইনস্টল করার পর আপনাকে অ্যাপ এর ভিতরে প্রবেশ করতে হবে অ্যাপ এর ভিতরে প্রবেশ করার পর কিছু পারমিশন চাবে সেগুলো আগে দিয়ে নিবেন।

[img id=572]
২। তারপর এই অপশন থেকে আপনার নির্দিষ্ট ছবিটি সিলেক্ট করে নিবেন যেটার ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ আপনি রিমুভ বা ডিলিট করতে চাচ্ছেন। তাছাড়া আপনি সরাসরি ক্যামেরার মাধ্যমে ছবি তুলে ও সেটার ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ ডিলিট করতে পারবেন। এই দুই রকম অপশন এ অ্যাপ এর ভিতর দেওয়া থাকবে আপনার যেটা সুবিধা মনে হয় আপনি সেটা সিলেক্ট করে দিয়ে কাজ করতে পারবেন।

[img id=571]
৩। নির্দিষ্ট ছবি টি সিলেক্ট করার পর কিছু সময় নিবে ছবিটি উপস্থাপন হওয়ার জন্য তারপর উপরের ছবির মত সেম ইন্টারফেজ দেখা যাবে। এখন আপনাকে যা করতে হবে সেটা হচ্ছে আপনি যে অংশটি রিমুভ করতে চাচ্ছেন সেই অংশটিতে একবার ক্লিক করবেন। ক্লিক করার পরে নিচের ছবিতে তীর চিহ্ন দ্বারা দেখানো অংশে সাথে সাথে ক্লিক করবেন এর ফলে সহজেই আপনার কাঙ্খিত ইমেজের অংশটি থেকে ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ হয়ে যাবে।
[img id=570]

—————0—————
[img id=569]
৪। ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করা হয়ে গেলে নিচের ডান পাশে তীর চিহ্ন দ্বারা দেখানো টিক চিহ্নে ক্লিক করে দিবেন।

[img id=568]
৫। টিক চিহ্নে ক্লিক করার পর Save As Photo নামে একটা অপশন পাবেন সেটাতে ক্লিক করলে আপনার কাঙ্খিত ছবিটি ফোন মেমোরিতে যুক্ত হয়ে যাবে।
তো এটাই ছিল আজকে আমার টিউটোরিয়াল। এই ওয়েবসাইটে আমি প্রথম আমার এই টিউটোরিয়ালটি করলাম। আশা করি সবার এই টিউটোরিয়ালটি ভালো লেগেছে। যেহেতু প্রথমবার লিখেছি তাই হয়তো ভুল ত্রুটি থাকতে পারে সেটা ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখার অনুরোধ করছি।

যদি টিউটোরিয়ালটি ভালো লাগে এবং এটা হতে সামান্যতম উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই পোস্টে একটা লাইক এবং কমেন্ট করবেন ।কারন আপনার একটা লাইক এবং কমেন্ট আমাকে অনুপ্রেরণা যোগাবে আমার পরবর্তী পোস্টের জন্য।

ধন্যবাদ আপনার মূল্যবান সময় অপচয় করে পোস্টটি পড়ার জন্য।
Posted on 8 Comments

বাংলাদেশের যেকোনো সিম অপারেটরের এমবি বা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করুন একটি মাত্র অ্যাপের মাধ্যমে!

হ্যালো ভিউয়ার্স। আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন। আমিও আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে ভালো আছি। আজকে আমি আপনাদের যে বিষয় নিয়ে পোস্ট লিখব সেটি হচ্ছে কিভাবে আপনারা যেকোনো বাংলাদেশি সিম টু সিম এমবি বা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবেন শুধুমাত্র একটি অ্যাপ ব্যবহার করে।

এর সাথে সেই অ্যাপ এর মধ্যে আরো কিছু মোবাইলের টিপস-এন্ড-ট্রিকস রয়েছে যেগুলো আপনাদের অনেক সাহায্য করবে।

তো চলুন কথা না বাড়িয়ে টিউটোরিয়ালটি শুরু করা যাক।

সর্বপ্রথম আপনাকে প্লে স্টোর থেকে একটি অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে অ্যাপটি কিভাবে ডাউনলোড করবেন অথবা অ্যাপ এর লিংক আমি পোস্ট এর নিচে দিয়ে দেবো সেখান থেকে সরাসরি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

তবে চলুন এখন দেখে নেওয়া যাক এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনারা কিভাবে বাংলাদেশি সিম টু সিম অপারেটরের মধ্যে এমবি বা ব্যালান্স ট্রান্সফার করবেন।

আপনি যখন একটি প্রথমে ইন্সটল করে ওপেন করবেন তখন এরকম একটি ইন্টারফেস দেখতে পাবেন।

এরপর সবার ওপরে লাল কালি দিয়ে মার্ক করা অপশনটিতে ক্লিক করবেন।

—————————০———————————-

এরপরেই আপনাদের সামনে বড় একটি তালিকা শো করবে। এখানে আপনারা দেখতে পাবেন বাংলাদেশের সকল সিম অপারেটরের যেমন গ্রামিনফোন এয়ারটেল রবি বাংলালিংক এ কিভাবে এমবি ব্যালেন্স ট্রান্সফার করবেন তার কোড নাম্বার সহ কীভাবে সেটি করবেন তারও বিস্তারিত বর্ণনা দেওয়া রয়েছে।

তবে এক্ষেত্রে আপনি রবি টু বাংলালিংক বা গ্রামীণফোন টু এয়ারটেল বা এয়ারটেল টু গ্রামীণফোন এমবি বা ব্যালেন্স ট্রান্সফার করতে পারবেন না।

এই সিস্টেম টি শুধুমাত্র একই সিম অপারেটর এর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। উপরে কিছু স্ক্রিনশট এর ডেমো দেওয়া হল সেখান থেকেও দেখে নিতে পারেন বা আপনি যদি চান এই অ্যাপটি সরাসরি ডাউনলোড করেও স্বইচ্ছায় যেটা প্রয়োজন সেটা দেখে নিতে পারেন।

চলুন এখন দেখে নেই কিভাবে একটি ডাউনলোড করবেন। তো এর জন্য আপনাদের কিছুই করতে হবে না। আমি নিচের লিংক দিয়ে দিচ্ছি সেটাতে ক্লিক করে অ্যাপটি ডাউনলোড করে নিন।

App Link

[url=https://play.google.com/store/apps/details?id=com.appdevteambd.mobilebalancetransfer]এখানে ক্লিক করুন[/url]

তাছাড়া এই অ্যাপটি যদি আপনি আপডেট অবস্থায় রাখেন তাহলে প্রতিনিয়ত সিম অপারেটরদের বিভিন্ন রকম অফারও আপনি পেতে পারেন।

আমার দেওয়া স্ক্রীনশট এর সিমের অফার এ 2018 সাল দেখাচ্ছে এর কারণ হচ্ছে এই অ্যাপটি 2018 সালে আমি ডাউনলোড করেছিলাম কিন্তু এখন অব্দি আপডেট করি নাই। আসলে প্রয়োজন হয় নাই।

কিন্তু আমার প্রয়োজন হয় নাই বলে যে আপনারও হবে না এমনটা তো না তাই আপনাদের মাঝে এই পোস্টটি শেয়ার করছি।

এছাড়াও এই অ্যাপের কিছু বাড়তি সুবিধা হচ্ছে এই অ্যাপের মাধ্যমে আপনারা বিভিন্ন দেশের মোবাইলের নাম্বারের কোড নাম্বার সহ আরো নানারকম দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় মোবাইল টিপস সম্পর্কে জানতে পারবেন।

তো এতোটুকু ছিলো আজকের এই টিউটোরিয়াল আশাকরি টিউটোরিয়ালটি ভালো লেগেছে।

Posted on 3 Comments

কোনো রকম এডসের ঝামেলা ছাড়া নতুন ভার্সনের Shareit Lite ব্যবহার করুন আরো কম এমবিতে!

হে ভিউয়ার্স! কেমন আছেন সবাই? আশা করি আপনারা সবাই আল্লাহ তায়ালার অশেষ রহমতে ভাল আছেন। আর ভালো থাকবেনই না কেন TwiceBD.com এর সাথে যারা থাকে তারা সকলেই ভালোই থাকে।

তো আমিও আপনাদের দোয়ায় ভাল আছি। আগেই বলে নেই এটা আমার এই ওয়েবসাইটে করা প্রথম পোস্ট। ভবিষ্যতে আমার কাছ থেকে আরও ইন্টারেস্টিং পোস্ট পাবেন এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ।
তো আজকে আমি আপনাদের দেখাতে চলেছি যে কিভাবে আপনারা শেয়ারইট অ্যাপ ব্যবহার করবেন কোন রকম এডস্ ছাড়া।
তাছাড়া এর আরো কিছু সুবিধা রয়েছে। যেমন:
১। অ্যাপসটির এমবি সাইজ কম,
২। অ্যাপস এ কোনোরকম এডস ব্যবহার করা হয়নি,

৩। আগের অ্যাপ এর চেয়ে এই লাইট ভার্সন দ্রুত এবং ফাস্ট।
তো চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে আপনারা এই অ্যাপটি আপনাদের মোবাইলে ইন্সটল করবেন এবং কোথায় থেকে ডাউনলোড করবেন।
এই অ্যাপসটি ডাউনলোড করার জন্য আপনাকে গুগোল প্লে স্টোরে গিয়ে সার্চ করতে হবে Shareit Lite লিখে।
যারা এই কষ্টটুকু করতে চাচ্ছেন না তাদের জন্য আমি নিজে এই অ্যাপের লিঙ্ক দিয়ে দিচ্ছি সেখানে ক্লিক করে সরাসরি অ্যাপের ওইখানে চলে যেতে পারবেন।

[img id=400]

App Link: Click Here To Download
তো অ্যাপটি ইনস্টল করা হয়ে গেলে এইরকম একটি ইন্টারফেস শো করবে। এখান থেকে Open বাটনে ক্লিক করুন।
[img id=399]

[img id=398]
ক্লিক করার পরে শেয়ার ইট এর লোগো এক থেকে দুই সেকেন্ড থাকার পর আপনার ফোন নাম্বার দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য বলবে। এটা অপশনাল। মানে আপনি যদি ফোন নাম্বার দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করেন তাহলেও হবে আবার যদি রেজিস্ট্রেশন না করেন তাও হবে।
এটা আপনার একান্ত বিষয়। তো রেজিস্ট্রেশন না করতে চাইলে নিচে ছোট করে স্কিপ অপশনটি আছে সেখানে ক্লিক করুন।
[img id=397]

ক্লিক করার পর কিছু পারমিশন চাইবে আপনার মিডিয়া ফাইল এর। সেটাকে Alow করে দিন। Alow করে দেওয়ার পর আপনাদের সামনে আবার সেই পরিচিত ইন্টারফেসটি চলে আসবে।
[img id=396]

আগের শেয়ারইট এর যেভাবে ফাইল ট্রান্সফার এবং রিসিভ করেছেন এটাতেও সেম একই কাজ। তবে আগেরটার থেকে এই শেয়ার ইট লাইট ভার্সনে আপনি অনেক বেশি সুবিধা পাচ্ছেন যা আমি উপরে আলোচনা করেছি।

এই ছিল আজকের টিউটোরিয়াল। আশাকরি টিউটোরিয়ালটি ভালো লেগেছে। ভবিষ্যতে ইনশাল্লাহ এর চেয়েও ভালো ভালো ইন্টারেস্টিং টিউটোরিয়াল নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হবো। তাই আমার পাশে থাকার জন্য আপনাদের অনুরোধ করছি।

যদি টিউটোরিয়ালটি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই লাইক এবং কমেন্ট করবেন কারণ আপনার একটা লাইক আমাকে অনুপ্রেরণা যোগাবে আমার পরবর্তী পোস্টের জন্য।

(এটা আমার প্রথম পোস্ট তাই ভুলত্রুটি হওয়া অস্বাভাবিক নয়। যদি আমার কোন ভুল ত্রুটি হয়ে থাকে তাহলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন এবং সংশোধন করে দেওয়ার চেষ্টা করবেন ধন্যবাদ পোস্টটি পড়ার জন্য)।